জিনের বাদশা প্রতারণা এড়াতে করণীয়

কর্তৃক সরকারি আদেশ
0 মন্তব্য 394 views

[ যে কোন ধরনের প্রতারণা রোধে বাংলাদেশ পুলিশ সদা সক্রিয়। এ লক্ষ্যে, সন্দেহভাজন প্রতারকদের চিহ্নিত করতে এবং সংগঠিত প্রতারণার ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট প্রতারকদের আইনের আওতায় আনতে প্রতিনিয়ত কাজ করে যাচ্ছে বাংলাদেশ পুলিশের মাঠপর্যায়ের বিভিন্ন ইউনিট। তবে, শুধুমাত্র আইন প্রয়োগ করে এ ধরনের অপরাধ সম্পূর্ণভাবে নির্মূল করা খুব সহজ নয়। এক্ষেত্রে, সামাজিক সচেতনতা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারে। তাই আসুন এ ধরণের প্রতারণা এড়াতে কিছু সাধারণ পরামর্শ মেনে চলি।]

মাঝরাতে আপনি গভীর ঘুমে আচ্ছন্ন। এমন সময় হঠাৎ আপনার মোবাইল ফোনে অপরিচিত একটি নম্বর থেকে কল আসবে। কিছুটা মোলায়েম, কিছুটা কর্তৃত্বপূর্ণ কন্ঠে এক ধরণের ঘোর লাগা সুরে আপনার সাথে কথা বলবে। নিজেকে জিনের বাদশা বলে পরিচয় দিবে। বিষয়টি কাউকে না জানাতে নির্দেশ দিবে। কাউকে জানালে ছেলে-মেয়ের ভয়ংকর ক্ষতি/অমঙ্গল হবে মর্মে ভয় দেখাবে। তারপর আপনাকে কোন গুপ্তধনের সন্ধান দিবে মর্মে হাদিয়া বাবদ কিছু টাকা বিকাশ করতে বলবে।

যদি কেউ বিকাশের মাধ্যমে হাদিয়া পাঠাতে শুরু করে এবং সেটি চালিয়ে যায়, তাহলে এভাবে কয়েকবার টাকা পাঠানোর পর এক সময় তাকে গুপ্তধন নেয়ার জন্য বিশেষ কোন জায়গায় যেতে বলবে। টার্গেট যদি সেই ফাদে পা দেয় তাহলে তাকে সেখান থেকে প্রতারকের সুবিধাজনক কোন স্থানে নিয়ে গিয়ে বন্দি করে ফেলে। তারপর ভিকটিমকে বেঁধে রেখে নানারকম শারীরিক নির্যাতন করে এবং তার মোবাইল থেকে তার পরিবারের সদস্যদেরকে কল করে মোটা অংকের মুক্তিপণ দাবি করে।

পরামর্শঃ এ ধরণের কলে বিচলিত না হয়ে কলটি কেটে দিন এবং পরবর্তীতে ঐ নম্বর থেকে আবার কল আসলে কল রিসিভ করা থেকে বিরত থাকুন।
বিঃদ্রঃ এ ধরণের কল পেলে বিষয়টি সংশ্লিষ্ট থানাকে অবগত করুন।

রিলেটেড আরও পোস্ট

মতামত দিন

error: Content is protected !!