সঞ্চয়পত্র ক্রেতাদের হয়রানি বন্ধে বাংলাদেশ ব্যাংকের সার্কুলার জারি

কর্তৃক সরকারি আদেশ
0 মন্তব্য 522 views

প্রিয় মহোদয়,
সম্প্রতি লক্ষ্য করা যাচ্ছে যে, সঞ্চয়পত্র সংশ্লিষ্ট সেবা লাভের ক্ষেত্রে বিভিন্ন সময়ে গ্রাহকগণ তফসিলি ব্যাংকসমূহ কর্তৃক হয়রানির শিকার হচ্ছেন। সে প্রেক্ষিতে সঞ্চয়পত্র বিনা এবং বিনা পরবর্তী অন্যান্য সেবা প্রদানকালে নিম্নবর্ণিত নির্দেশনাসমূহ অনুসরণের জন্য আপনাদের নির্দেশ প্রদান করা হলো।
ক. সঞ্চয়পত্র ক্রয়ের নিমিত্ত গ্রাহকের আবেদন ইস্যু অফিস কর্তৃক গ্রহণের পর উক্ত তারিখ হতে পরবর্তী এক কর্মদিবসের মধ্যেই ক্রেতার দাখিলকৃত চেক নিকাশ (Clearing) এর জন্য উপস্থাপন করতে হবে এবং চেক নিকাশ (Clearing) হওয়ার তারিখেই গ্রাহকের অনুকূলে সংশ্লিষ্ট ইন্সট্রুমেন্ট ইস্যু করতে হবে। এছাড়া, গ্রাহক কর্তৃক ডেবিট অথরিটির মাধ্যমে সঞ্চয়পত্র ক্রয়ের জন্য আবেদন করা হলে গ্রাহকের হিসাব বিকলন/ডেবিট করার তারিখেই গ্রাহকের অনুকূলে সংশ্লিষ্ট ইন্সট্রুমেন্ট ইস্যু করতে হবে।
জাতীয় সঞ্চয় স্কিম অনলাইন ম্যানেজমেন্ট সিস্টেমের মাধ্যমে বিক্রিত সঞ্চয়পত্রের মুনাফা/সুদ ও মেয়াদপূর্তিতে আসল মূল অর্থ প্রদেয় হওয়ার তারিখেই ইন্টিমেশন প্রদান নিশ্চিত করতে হবে।
গ. গ্রাহকের সঞ্চয়পত্র কেনা পরবর্তী যে কোন আবেদন (যেমন: নমিনি পরিবর্তন, হিসাব নম্বর পরিবর্তন, মোবাইল নাম্বার পরিবর্তন, ইএফটি সংক্রান্ত সমস্যা ইত্যাদি) গ্রহণের তারিখ হতে সর্বোচ্চ ৩ (তিন) কর্মদিবসের মধ্যে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।
খ. জাতীয় সঞ্চয় অধিদপ্তরের আওতাধীন জেলা সঞ্চয় অফিস/ব্যুরো ও জাতীয় সঞ্চয় বিশেষ ব্যুরোসমূহ এর দায়িত্বপ্রাপ্ত লিংক ব্যাংক, অফিস/ব্যুরোর গ্রাহকগণের চেক যথাসময়ে নিকাশ (Clearing) করে সংশ্লিষ্ট অফিসকে অবহিত করবে। ড. সঞ্চয়পত্র ক্রয়ের নিমিত্ত নিকাশ (Clearing) এর জন্য উপস্থাপিত চেক যথোপযুক্ত কারণ ব্যতীত ফেরৎ প্রদান করা যাবে।
চ. গ্রাহকের অনুকূলে ইলেকট্রনিক ফান্ড ট্রান্সফার (ইএফটি) ইন্ট্রাকশন এর মাধ্যমে প্রেরিত সাপত্রের মুনাফা/সুদ ও আসল/মূল ফেরত প্রদান করা যাবে না।

পূর্ব পৃষ্ঠা হতে
ছ. বাংলাদেশ অটোমেটেড ক্লিয়ারিং হাউস (BACH) এর মাধ্যমে সম্পাদিত লেনদেনের উপর চার্জ আদায় সংক্রান্ত ইস্যুতে বাংলাদেশ ব্যাংকের ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৩ তারিখে জারীকৃত পিএসডি সার্কুলার নং- ১/২০১৩ এর ৪ নং নির্দেশনা এবং এতদবিষয়ে বাংলাদেশ ব্যাংক কর্তৃক সময়ে সময়ে জারীকৃত নির্দেশনা যথাযথভাবে অনুসরণ করতে হবে।
জ. সদায়পত্র বিক্রয়কালে ইস্যুকারী ব্যাংক বা শাখা কর্তৃক উক্ত ব্যাংকে বা শাখায় গ্রাহককে হিসাব খোলার জন্য বাধ্য করা
যাবে না এবং
ঝ. নিরাপত্তার স্বার্থে এক জনের বা ব্যাংকের এক শাখার ইউজার আইডি অন্য ব্যক্তি বা অন্য শাখা কর্তৃক ব্যবহার করা যাবে না।
০২। ব্যাংক-কোম্পানি আইন, ১৯৯১ এর ৪৫ ধারায় প্রদত্ত ক্ষমতাবলে জনস্বার্থে এ নির্দেশনা জারী করা হলো।

রিলেটেড আরও পোস্ট

মতামত দিন

error: Content is protected !!